• Thursday, ২৯ অক্টোবর, ২০২০
  • ১১:০০
শিরোনাম

দেশে শিরক ও বিদআত মুক্ত করতে মুহাম্মদী আদর্শের বিকল্প নেই আল্লামা নোমান ফয়জী

ইলমী যিন্দেগীর একটি গুরত্বপূর্ণ অধ্যায় শেষ করে তোমরা এখন বিদায়ের অন্তপ্রহরী। তবে এখানেই তোমাদের ইলমী সফর শেষ নয়।গন্তব্য এখনও বহুদূর।

মাহমুদুল হাসান, আলোকিত মিডিয়া।

এশিয়া মহাদেশের প্রাচীনতম ঐত্যিবাহী দ্বীনি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান আল জামিয়াতুল ইসলামিয়া হামিউস সুন্নাহ মেখল মাদরাসার  ২০১৮-১৯ইং শিক্ষা বর্ষ হেদায়া জামাতের  অধ্যায়নরত  ছাত্র বৃন্দের উদ্যোগে ১০ই এপ্রিল (বুধবার) বিদায় অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়।
উক্ত অনুষ্ঠানে অত্র মাদরাসার মহাপরিচালক আল্লামা নোমান ফয়জী বিদায়ী ছাত্রদের উদ্দেশ্যে  তিনি বলেন ইলমী যিন্দেগীর একটি গুরত্বপূর্ণ অধ্যায় শেষ করে তোমরা এখন বিদায়ের অন্তপ্রহরী। তবে এখানেই তোমাদের ইলমী সফর শেষ নয়।গন্তব্য এখনও বহুদূর। তোমরা পূর্ব থেকে অবগত যে,ইলমে দ্বীনের উদ্দেশ্য হলো আল্লাহকে চেনা ও তাঁর বিধানমতে জীবন পরিচলনা করে সন্তুষ্টি অর্জন করা। আর আল্লাহকে চেনার জন্য প্রয়োজন গভীর ইলম। কেননা ইলম ছাড়া আল্লাহকে চেনা যায় না।

মনেরেখ,তোমরা আগামীর হাদিয়ে ক্বওম,রাহবারে উম্মাহ। লোকেরা তোমাদের অনুসরণ করবে। তাই তোমরা সর্বগ্রে নিজেকে রাঙিয়ে নিবে মুহাম্মদী আদর্শ। জীবনের প্রতিটি ক্ষেত্রে আঁকড়ে ধরবে প্রিয় নবীজির রেখে যাওয়া সুন্নত।শিরক ও বিদআতের মহাপ্লাবনে নিমজ্জিত উম্মাহ আজ হাবুডুবু খাচ্ছে।তাদেরকে কুরআন ও সুন্নাহর পথ দেখাবে।অর্জিত ইলম অনুযায়ী আমল করবে।সর্বদা তাকওয়া ও সুন্নাহর পন্থা অবলম্বন করবে তাহলে তোমরা হবে ধন্য, অনন্য ও বরণ্য রুহানী সন্তানেরা।

ধর্মহীন শিক্ষার যাতাঁকলে পিষ্ট ও নিষ্পেষিত জাতি আজ দিশেহারা। এমনি এক যুগসন্ধিক্ষণে ইসলাম, দেশ ও জাতির দুর্দিনে তোমরা পথপ্রদর্শকের দায়িত্ব পালন করবে। আল্লাহর উপর ভরসা করে ইলমী দক্ষতা, খোদাভীতির একনিষ্ঠতা ও সুন্নাতের দূর্জয় হাতিয়ার নিয়ে দাওয়াত, তালীম,তাযকিয়া,জিহাদ,ও সিয়াসাত,ইমামাত সহ লেখনীর ময়দানেও ভূমিকা পালন করবে।নেক দুআর শুভক্ষণে তোমরা নিজেদের আসাতিযায়ে কেরামদেরকে ভূলে যেও না।তাঁদের  সাথে অটুট সম্পর্ক রাখবে।

পরিশেষে তিনি আরো বলেন তোমাদের স্বর্ণোজ্জ্বল ভবিষ্যৎ কামনা করছি। আল্লাহ তোমাদেরকে আমলদার আলেম হিসেবে কবুল করুন। এবং দেশ ও জাতীর জন্য সুখ-শান্তির দুআ ও মাগফিরাত কামনা করেন।

শেয়ার